ঢাকা, রবিবার - ২১শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

চট্টগ্রামে দাফনের ৪০ দিন পর গৃহবধূর মরদেহ তুলেছে পুলিশ

আলফা শাহরিন (২৬)। ছবি- সংগৃহীত

Share on facebook
Share on whatsapp
Share on twitter
Share on linkedin

চট্টগ্রামের বায়েজিদে দাফনের ৪০ দিন পর আদালতের নির্দেশনায় এক গৃহবধূর মরদেহ তুলেছে পুলিশ। ওই গৃহবধূর শ্বশুরবাড়ি পক্ষের দাবি ‘রিকশায় ওড়না পেঁচিয়ে’ তার মৃত্যু হয়েছে।

এদিকে পরিবারের দাবি যৌতুকের টাকা না পেয়ে শাশুড়ি, ননদ ও দেবর মিলে ঘরের মধ্যে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে পরিকল্পিতভাবে খুন করে আত্মহত্যা বলে প্রচার করেছে।

বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) সকালে নগরীর বায়েজিদ থানার চালিতাতলী বাজারের মসজিদ সংলগ্ন নুরুল আমিনের পারিবারিক কবরস্থান থেকে এ মরদেহ উত্তোলনের কার্যক্রম শুরু করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

আরও পড়ুন  ভালুকায় ত্রি-মুখী সংঘর্ষে সড়কে প্রাণ গেল যুবকের

গৃহবধূর নাম আলফা শাহরিন (২৬)। তিনি বায়েজিদ বোস্তামি থানার চালিতাতলী বাজারের দারোগা বাড়ির মৃত সিরাজুল মোস্তফার ছেলে মো. জাহেদুল মোস্তফার স্ত্রী এবং একই এলাকার নুরুল করিমের মেয়ে।

জানা গেছে, যৌতুকের টাকা না পেয়ে শাশুড়ি, ননদ ও দেবর মিলে শাহরিনকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে। এমন অভিযোগ এনে গত ৬ মে ওই তিনজনকে আসামি করে চট্টগ্রামের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৭ এ একটি পিটিশন দায়ের করেন ভিকটিমের বাবা নুরুল করিম। আদালতের নির্দেশনা পেয়ে ঘটনার তদন্ত শুরু করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) চট্টগ্রাম মেট্রো।

আরও পড়ুন  বোয়ালখালীতে বাল্যবিবাহ বন্ধ করলেন এসিল্যান্ড

অভিযুক্ত তিন আসামি হলেন- আলফা শাহরিনের শাশুড়ি বিবি আয়েশা (৪৮), তার ছেলে সামির (২১) ও মেয়ে আশফিকা (১৯)। তাদের বাড়ি পাঁচলাইশ থানার আদু মাঝির বাড়ি এলাকায়। তবে তারা সকলেই পলাতক রয়েছেন।

পিবিআই মেট্রো শাখার সহকারী পুলিশ সুপার এ কে এম মহিউদ্দিন সেলিম বলেন, তদন্তের অংশ হিসেবে ময়নাতদন্তের জন্য আজ (বৃহস্পতিবার) কবর থেকে শাহরিনের মরদেহ তোলা হয়েছে। হত্যা বা আত্মহত্যা কোনও তত্ত্বই উড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে না। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলেই বোঝা যাবে তার মৃত্যুর রহস্য।

আরও পড়ুন  কক্সবাজারে সর্ববৃহৎ আইসের চালান জব্দ, সাবেক পুলিশ সদস্যসহ গ্রেপ্তার ৪

আলোচিত সংবাদ