ঢাকা, রবিবার - ১৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

চসিকের প্রকল্প পরিচালককে মারধর: প্রধান আসামি গ্রেপ্তার

ছবিঃ সংগৃহীত

Share on facebook
Share on whatsapp
Share on twitter
Share on linkedin

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের (চসিক) একটি উন্নয়ন প্রকল্পের পরিচালক মো. গোলাম ইয়াজদানীকে তার দপ্তরে ঢুকে মারধর ও ভাঙচুরের ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলার প্রধান আসামি সাহাব উদ্দিনকে গ্রেপ্তার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ।

সোমবার (৬ ফেব্রুয়াারি) দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে নগরীর লালখান বাজারের বাঘঘোনা এলাকার একটি বাসা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গতকাল চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মেহনাজ রহমানের আদালতে সাহাব উদ্দিনকে হাজির করে সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করে পুলিশ। আগামী বৃহস্পতিবার রিমান্ড শুনানির দিন ধার্য করে আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। সাহাব চসিকের তালিকাভুক্ত ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান এস জে ট্রেডার্সের স্বত্বাধিকারী।

আরও পড়ুন  চট্টগ্রামের পথে বিএনপিকে নামতে দেওয়া হবে না: আ জ ম নাছির

নগর গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার (উত্তর) মো. সোনাহর আলী সাংবাদিকদের বলেন, ঘটনার পর থেকে গ্রেপ্তার এড়াতে সাহাব চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারের বিভিন্ন এলাকায় আত্মগোপনে ছিলেন। গোপন সংবাদে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে লালখান বাজার বাঘঘোনা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

জানা গেছে, ২৯ জানুয়ারি বিকাল সাড়ে ৩টা থেকে ৪টার মধ্যে চসিকের টাইগারপাস অস্থায়ী কার্যালয়ের চতুর্থ তলার ৪১০ নম্বর কক্ষে মো. গোলাম ইয়াজদানীকে মারধর এবং তার টেবিল ও নামফলক ভাঙচুর করেন ঠিকাদাররা। এ ঘটনায় ওই রাতেই চসিকের নিরাপত্তা কর্মকর্তা মো. কামাল উদ্দিন বাদী হয়ে ১০ জন ঠিকাদারের নাম উল্লেখ করে খুলশী থানায় মামলা দায়ের করেন। ঘটনার দিন রাতে নগরীর বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে সঞ্জয় ভৌমিক কংকন, সুভাষ মজুমদার, মো. ফিরোজ ও মাহমুদুল হক নামে চার ঠিকাদারকে গ্রেপ্তার করে খুলশী থানা পুলিশ। পরে মামলার তদন্ত কার্যক্রম ডিবি (উত্তর) বিভাগে হস্তান্তর করা হয়।

আরও পড়ুন  চট্টগ্রামের আকবর শাহ এলাকায় পাহাড় ধসে নিহত ৩

ট্যাগঃ