ঢাকা, বুধবার - ২৮শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

দেশত্যাগের চেষ্টা: ১১২ রোহিঙ্গাকে কারাদন্ড দিলো মিয়ানমার

ছবিঃ সংগৃহীত

Share on facebook
Share on whatsapp
Share on twitter
Share on linkedin

দেশত্যাগের চেষ্টা করতে গিয়ে ধরা পড়া ১১২ রোহিঙ্গাকে কারাদণ্ড দিয়ে কারাগারে পাঠিয়েছে মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ। এর মধ্যে ১২ শিশু রয়েছে। তাদের কারাদণ্ড দিয়ে ‘যুব প্রশিক্ষণ স্কুলে’ পাঠিয়েছে দেশটির কর্তৃপক্ষ।

মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি) স্থানীয় পুলিশের বরাত দিয়ে দেশটির রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম গ্লোবাল নিউ লাইট অব মিয়ানমার এক প্রতিবেদনে বলেছে, দেশের দক্ষিণের আয়েয়ারওয়াদি অঞ্চলের বোগালের একটি আদালত গত ৬ জানুয়ারি ওই রোহিঙ্গাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। খবর আলজাজিরার।

আরও পড়ুন  তিউনিশিয়ায় ৯০১ অভিবাসন প্রত্যাশীর মৃতদেহ উদ্ধার

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, গত ডিসেম্বরে এসব রোহিঙ্গা একটি ইঞ্জিনচালিত নৌকায় করে দেশ ছাড়ার চেষ্টা করছিলেন। এ সময় তাদের কাছে সরকারি কোনও কাগজপত্র ছিল না। পরে কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া দেশ ছাড়তে চাওয়ায় তাদের আটক করা হয়। তাদের মধ্যে ১২ শিশু রয়েছে। এদের মধ্যে ১৩ বছরের কম বয়সী পাঁচ শিশুকে দুই বছর এবং এর চেয়ে বেশি বয়সী শিশুদের তিন বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়। পরে গতকাল সোমবার তাদের ‘যুব প্রশিক্ষণ স্কুলে’ পাঠানো হয়। আর বয়স্ক সবাইকে পাঁচ বছর করে কারাদণ্ড দিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়।

আরও পড়ুন  যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে ফের গোলাগুলি, নিহত ১৬

বৌদ্ধ সংখ্যাগরিষ্ঠ মিয়ানমারে অধিকাংশ মুসলিম রোহিঙ্গা নাগরিকত্ব ও অন্যান্য মৌলিক অধিকার থেকে বঞ্চিত। দেশটির দাবি, মুসলিম রোহিঙ্গারা দক্ষিণ এশিয়া থেকে আসা ‘অবৈধ অভিবাসী’।

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালে দেশটির সামরিক বাহিনীর নৃশংস দমন-পীড়নের মুখে লাখ লাখ রোহিঙ্গা প্রতিবেশী বাংলাদেশে পালিয়ে আসে। ওই দমন-পীড়নের ঘটনায় গণহত্যার অভিযোগে দ্য হেগের আন্তর্জাতিক বিচার আদালতে (আইসিজে) দেশটির বিরুদ্ধে বিচার চলছে।

আরও পড়ুন  দিল্লিতে ড্রোনসহ বাংলাদেশি নারী আটক

ট্যাগঃ

আলোচিত সংবাদ