ঢাকা, বুধবার - ২৮শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

নির্বাচনে দলের কেউ সংঘাত করলে কঠোর ব্যবস্থা: প্রধানমন্ত্রী

ফাইল ছবি

Share on facebook
Share on whatsapp
Share on twitter
Share on linkedin

নির্বাচনে দলের কেউ সংঘাত করলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, ভোটে নৌকা-স্বতন্ত্র এবং অন্যান্য দলও আছে। জনগণ যাকে ভোট দেবে সেই নির্বাচিত হবে। কেউ কারো অধিকারে হস্তক্ষেপ করতে পারবে না। নির্বাচনে কোনো সংঘর্ষ বা মারামারি দেখতে চাই না।

বৃহস্পতিবার (২১ ডিসেম্বর) পাঁচ জেলার নির্বাচনি জনসভায় ভার্চুয়াল বক্তব্যে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

আরও পড়ুন  জামায়াতের কেন্দ্রীয় নেতা অ্যাড. মতিউর আটক

আওয়ামী লীগ সভাপতি হুশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, দলের কেউ সংঘাত করলে তার রেহাই নেই, তার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেবো। জনগণ নির্বিঘ্নে ভোটাধিকার প্রয়োগ করবে সেটিই চাই। গণতন্ত্রকে আরও সুদৃঢ় করতে না পারলে, বাংলাদেশ শেষ হয়ে যাবে।

এ সময় তিনি বলেন, ভোট চুরির সুযোগ নেই বলে বিএনপি নির্বাচনে আসেনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা দুর্নীতিমুক্ত, সুষম উন্নয়নের বাংলাদেশ গড়তে চাই। স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা দেবো। সন্ত্রাসী-জঙ্গিবাদী দল বিএনপির হাত থেকে দেশকে রক্ষা করতে হবে।

আরও পড়ুন  আমি আর খেলবোনা: সাকিব আল হাসান

বিএনপিকে অবৈধভাবে ক্ষমতাদখলকারীর পকেট থেকে বেরোনো দল মন্তব্য করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ মানুষের কল্যাণে কাজ করে, আর বিএনপি জানে জ্বালা-পোড়াও করতে। ২০১৩-১৪ এর মতো আবারও অগ্নিসন্ত্রাস করছে বিএনপি। বিদেশ থেকে নির্বাচন বানচালের হুকুম দিচ্ছে। ওরা গণতন্ত্র বানানই জানে না। মানুষের শান্তি ওদের ভালো লাগে না। তাদের সবকিছুই অবৈধ, ওরা নির্বাচনের কি বোঝে?

আরও পড়ুন  বাংলাদেশের উন্নয়নে ভারত পাশে থাকতে চায়: ভারতীয় হাইকমিশনার

আলোচিত সংবাদ