ঢাকা, শুক্রবার - ১২ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

বাংলাদেশে ‘মুক্ত গণতন্ত্র’ বাস্তবায়নে প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে: যুক্তরাষ্ট্র

ফাইল ছবি

Share on facebook
Share on whatsapp
Share on twitter
Share on linkedin

মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের ব্রিফিংয়ে আবারও উঠে এসেছে বাংলাদেশ প্রসঙ্গ। যেখানে এক প্রশ্নের জবাবে বলা হয়েছে, বাংলাদেশে অবাধ, পূর্ণাঙ্গ এবং মুক্ত গণতন্ত্র বাস্তবায়নে আমাদের প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে। কারণ গণতন্ত্র এগিয়ে নেওয়াই প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের শীর্ষ অগ্রাধিকারগুলোর মধ্যে একটি।

বুধবার (২৭ মার্চ) নিয়মিত ব্রিফিংয়ে এক প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র ম্যাথিউ মিলার।

আরও পড়ুন  বিশ্বকাপের শেষ ম্যাচে খেলছেন না সাকিব

ব্রিফিংয়ে এক সাংবাদিক প্রশ্ন করেন- ২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে বাংলাদেশের জনগণকে অভিনন্দন জানিয়ে পাঠানো এক বিবৃতিতে বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থা জোরদার ও মানবাধিকার রক্ষায় জনগণের পাশে থাকার অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করেছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন। বাংলাদেশে এখন কর্তৃত্ববাদী শাসন চলছে, গণতন্ত্র এবং আইনের শাসনের অভাবে দেশের জনগণ নির্যাতিত হচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে বাইডেন প্রশাসন কী ধরনের পদক্ষেপ নিতে পারে সে বিষয়ে ধারণা দিতে পারেন?

আরও পড়ুন  গাজায় ইসরায়েলি বিমান হামলায় নিহত ৭০৪

জবাবে ম্যাথিউ মিলার বলেন, বাংলাদেশ ইস্যুতে সুনির্দিষ্ট কী ধরনের পদক্ষেপ নেওয়া হতে পারে সে বিষয়ে পর্যালোচনা করে বলার মতো আমার হাতে এখন কিছু নেই। যুক্তরাষ্ট্র প্রশাসনের গৃহীত পদক্ষেপের বাইরে আমরা যেটা স্পষ্ট করে বলেছি, প্রেসিডেন্ট বাইডেন এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী ব্লিঙ্কেনের পররাষ্ট্রনীতির সর্বোচ্চ গুরুত্বের তালিকায় রয়েছে গণতন্ত্রের বিকাশ।

তিনি বলেন, আমরা বাংলাদেশ সরকারের সাথে আমাদের বিভিন্ন কথোপকথনে এই বিষয়টি স্পষ্ট করে দিয়েছি। এবং অবশ্যই আপনিও – আপনি এবং আমি (বাংলাদেশের) নির্বাচনের আগে বেশ কয়েকবার এই বিষয়ে কথা বলেছিলাম।

আরও পড়ুন  আবারও ২ দিনের কর্মসূচি ঘোষণা বিএনপির

মিলার আরও বলেন, আমরা অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন দেখতে চেয়েছিলাম এবং বাংলাদেশে অবাধ, পরিপূর্ণ, উন্মুক্ত গণতন্ত্রকে এগিয়ে নিতে আমরা আমাদের সমর্থন অব্যাহত রাখব।