ঢাকা, শনিবার - ১৫ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

আলোচিত সংবাদ

ভিপি নুরকে ‘পলাতক’ দেখিয়ে আদালতে চার্জশিট

ছবিঃ সংগৃহীত

Share on facebook
Share on whatsapp
Share on twitter
Share on linkedin

ফেসবুক লাইভে এসে আওয়ামী লীগের কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে বিরূপ মন্তব্য করার ঘটনায় সংগীতশিল্পী ইলিয়াস হোসেনের দায়ের করা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুরকে পলাতক দেখিয়ে চার্জশিট দেওয়া হয়েছে।

সোমবার (৬ মার্চ) আদালতের পল্টন থানার সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক শাহ আলম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

অভিযোগপত্রে নুরকে পলাতক দেখিয়ে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির আবেদন করেছেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইম বিভাগের পরিদর্শক মুহাম্মদ সাইফুল ইসলাম।

গত ৩১ জানুয়ারি আদালতে চার্জশিট দেয় ডিবি সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইম বিভাগ। যা ভিপি নুরের বিরুদ্ধে এ পর্যন্ত হওয়া ২০টি মামলার মধ্যে প্রথম কোনো চার্জশিট।

আরও পড়ুন  'ওষুধ নাকি এনার্জি ড্রিংকস', পাঁচ মালিকের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি

এ বিষয়ে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবি সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইম বিভাগের পরিদর্শক মুহাম্মদ সাইফুল ইসলাম বলেন, নুরুল হক নুরের বিরুদ্ধে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেছে। তার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন-২০১৮-এর ২৫/২৮/২৯/৩১ ধারায় চার্জশিট দাখিল করা হয়েছে। সাক্ষীরা আদালতে ঘটনার সত্যতা প্রমাণ করবে।

মামলার চার্জশিটে বলা হয়েছে, আসামি নুরুল হক নুর ২০২১ সালের ১৪ এপ্রিল সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক লাইভে এসে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ করে আক্রমণাত্মক, মিথ্যা, মানহানিকর, উসকানিমূলক বক্তব্য প্রদান করেন। যার মাধ্যমে ধর্মীয় মূল্যবোধ ও অনুভূতিতে আঘাত করে। তিনি দেশের সামগ্রিক আইনশৃঙ্খলা অবনতি, বিভিন্ন সম্প্রদায় ও শ্রেণির মধ্যে শত্রুতা বিদ্বেষ, ঘৃণা সৃষ্টি করা, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করাসহ অস্থিরতা এবং বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা করেন। তবে ৩৫ ধারায় অপরাধ প্রমাণিত হয়নি।

আরও পড়ুন  চট্টগ্রামে যুবদলের ৬ নেতা-কর্মী কারাগারে

২০২১ সালের ১৯ এপ্রিল মামলাটি হয়। মামলার বাদী কণ্ঠশিল্পী ইলিয়াস হোসেন বলেন, ভিপি নুর আওয়ামী লীগকে হেয়প্রতিপন্ন করে বক্তব্য দিয়েছে। তাই আমি আওয়ামী লীগের একজন সমর্থক হিসেবে মামলা করছিলাম। তদন্তে তার বিরুদ্ধে অভিযোগের সত্যতা পেয়েছে পুলিশ। এ মামলার বিচার দ্রুত শেষ করে নুরের শাস্তি হোক সেই প্রত্যাশা করছি।

এবিষয়ে নুরুল হক নুর বলেন, এ মামলার কোনো ভিত্তি নেই। বিরোধী দলকে দমনের অস্ত্র হিসেবে মামলা দিয়েছে সরকার। হয়রানিমূলক মামলা আইনগতভাবে মোকাবিলা করে নিজে হয়রানির শিকার হব না। প্রকৃত অপরাধী হলে আদালত গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করলে তখন দেখা যাবে।

আরও পড়ুন  ভাষা শহীদদের সম্মানে বাংলায় রায় দিলেন হাইকোর্ট

পলাতক দেখানোর বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, দেশেই আছি, নিয়মিত মিছিল-মিটিং করছি। আমাকে পলাতক দেখিয়ে মিথ্যাচার করা হয়েছে। আমরা মোটেও ভীতসন্ত্রস্ত নই। এ মামলার অভিযোগ গঠনের আগেই সরকারকে বিদায় নিতে হবে।

ট্যাগঃ

আলোচিত সংবাদ

এ বিভাগের আরও

সর্বশেষ