ঢাকা, রবিবার - ২১শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

ভুল স্বীকার করলেন তানজিম হাসান, বিসিবির সতর্কবার্তা

ছবিঃ সংগৃহীত

Share on facebook
Share on whatsapp
Share on twitter
Share on linkedin

আন্তর্জাতিক অভিষেকের এক সপ্তাহও পেরোয়নি, তানজিম হাসান সাকিব এরই মাঝে পড়ে গেছেন তীব্র সমালোচনার মুখে; তাও আবার মাঠের বাইরের কাজ দিয়ে।

ভারতের বিপক্ষে এশিয়া কাপে ম্যাচ জিতিয়ে রাতারাতি নায়ক হয়ে গিয়েছিলেন তানজিম হাসান সাকিব। কিন্তু সেই ম্যাচের একদিন পরেই যুব বিশ্বকাপজয়ী তারকাকে নিয়ে সমালোচনার ঝড় ওঠে সামাজিক যোগাযোগামাধ্যমে।

কিন্তু সব ছাপিয়ে তানজিম সাকিবের পুরনো কিছু ফেসবুক পোস্ট ভাইরাল হয়ে নতুন মাত্রা যোগ করে। যা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় চলছে আলোচনা-সমালোচনা। মাঠে দুর্দান্ত পারফর্ম করা তানজিম সাকিব পুরনো ফেসবুক পোস্ট নিয়ে ভুল স্বীকার করেছেন। এ ঘটনায় তাকে সতর্কবার্তা দিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। বোর্ডের তরফ থেকে তরুণ এই পেসারকে সতর্ক করে দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন ক্রিকেট অপারেশন্স চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস।

আরও পড়ুন  চট্টগ্রামের ডিসি-এসপিসহ ৪ জনকে তলব হাইকোর্টের

মঙ্গলবার (১৯ সেপ্টেম্বর) মিরপুরে গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন বিসিবির এই ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা।

এর আগে গণমাধ্যমকে তানজিম সাকিব বলেন, আল্লাহ তো কুরআনে বলেই দিয়েছেন আমি জিন এবং মানব জাতিকে সৃষ্টি করেছি আমার এবাদতের জন্য। ক্রিকেট আমার পেশা, আমি এখান থেকে ইনকাম করি। আমার তো মেইন জীবনটা অফলাইনের জীবন। মৃত্যুকে সকলেরই মোকাবিলা করা লাগবে। কখন কে মারা যাবে, কেউ কিছু জানে না। আমি পরকালে সফল হতে না পারলে তো শেষ পর্যন্ত ব্যর্থই থেকে যাব। সুতরাং সেই হিসেব করে আমি ইসলামকে মেনে চলার চেষ্টা করি। চেষ্টা করি সবসময় ইসলামের মধ্যে থাকার জন্য। আর এই জিনিসটি আমাকে খেলার মধ্যেও অনেক সাহায্য করে।

আরও পড়ুন  যুক্তরাষ্ট্রে যাচ্ছেন সরকারি-বেসরকারি ৩০ ব্যাংকের এমডি

বাংলাদেশের তরুণ এই ক্রিকেটার আরও বলেন, ইসলাম আমাকে শৃঙ্খলার মধ্যে থাকতে সাহায্য করে। তাতে মানসিকভাবে আমি শক্ত থাকতে পারি। আমার মানসিকতা অন্যদিকে যায় না। একটি নির্দিষ্ট জায়গায় নিজের মানসিকতা ধরে রাখতে পারি। সুতরাং এটি আমাকে দুনিয়া এবং আখিরাত- দুইদিক থেকেই সাহায্য করছে।

তিনি আরও বলেন, সতীর্থরা আমার এই বিষয়টা খুবই পজিটিভলি নেয়। যখন তারা কোনও জিনিস না বুঝে, বা ইসলামী কোনও একটা জিনিস জানার চেষ্টা করে তখন আমাদের দুজনের কাছেই আসে (সতীর্থ মোহাম্মদ মৃত্যুঞ্জয় ও তানজিম সাকিব)। সেই বিষয়গুলো আমাদের জানা না থাকলে আমরা জেনে তাদের উত্তর দেয়ার চেষ্টা করি।

উল্লেখ্য, ২০২২ সালের ৯ সেপ্টেম্বর তানজিম তার ফেসবুক পেজে একটি পোস্টে লিখেছিলেন, স্ত্রী চাকরি করলে স্বামীর হক আদায় হয় না, স্ত্রী চাকরি করলে সন্তানের হক আদায় হয় না, স্ত্রী চাকরি করলে তার কমনীয়তা নষ্ট হয়, স্ত্রী চাকরি করলে পরিবার ধ্বংস হয়, স্ত্রী চাকরি করলে পর্দা নষ্ট হয়, স্ত্রী চাকরি করলে সমাজ নষ্ট হয়।

আরও পড়ুন  দুর্গাপূজা শুধু হিন্দু সম্প্রদায়ের উৎসবই নয়, এটি সর্বজনীন: প্রধানমন্ত্রী

পোস্টের শেষে বলা হয়েছে, অতএব মা-বোনেরা নিজের আত্মমর্যাদা রক্ষার্থে স্বামীর আনুগত্য ও বাসায় অবস্থান করে রানির হালাতে অবস্থান করুন। অতএব মা-বোনেরা দুনিয়া কামাতে যেয়ে আখেরাত না হারিয়ে ঘরে অবস্থান করে স্বামী-সন্তানের খেদমত করে দুনিয়া ও আখেরাত দুটিই কামাই করতে পারবেন ইনশা আল্লাহ।

তানজিমের এই পোস্টের স্ক্রিনশট এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। পোস্টটি এখন আর তানজিমের ফেসবুক পেজে পাওয়া যাচ্ছে না।

ট্যাগঃ