ঢাকা, বুধবার - ২৮শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

রাশিয়ান যুদ্ধবিমানের সাথে মার্কিন ড্রোনের সংঘর্ষ

ছবিঃ সংগৃহীত

Share on facebook
Share on whatsapp
Share on twitter
Share on linkedin

রাশিয়ান যুদ্ধবিমানের সাথে মার্কিন ড্রোনের সংঘর্ষের ফলে মানববিহীন ড্রোনটি কৃষ্ণ সাগরে বিধ্বস্ত হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৪ মার্চ) মার্কিন সামরিক বাহিনী জানিয়েছে, মধ্য ইউরোপীয় সময় সকাল ৬টা থেকে ৭টার দিকে এই ঘটনাটি ঘটেছে। ঘটনাটি ইউক্রেন যুদ্ধ নিয়ে রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে চলমান সংঘর্ষকে ঝুঁকির মুখে ফেলেছে।

আমেরিকান সামরিক বাহিনীর বরাত দিয়ে সংবাদটি প্রকাশ করেছে বিবিসি।

আরও পড়ুন  জাতিসংঘের 'সিএসডব্লিউ' সদস্য হলেন বাংলাদেশ

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বলেছে, তাদের ড্রোনটি আন্তর্জাতিক আকাশসীমায় একটি মিশনে ছিল, এমন সময় দুটি রাশিয়ান জেট এটিকে আটকানোর চেষ্টা করে।

অপরদিকে রাশিয়া বলেছে, ড্রোনটি একটি কৌশল অবলম্বন করে বিধ্বস্ত হয়েছে এবং রাশিয়ান বিমান দুটির আক্রমণের বিষয়টি অস্বীকার করেছে তারা।

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় আরও বলে, যে এমকিউ-৯ রিপার ড্রোনটি তার ট্রান্সপন্ডারগুলি বন্ধ করে উড়ছিল। ট্রান্সপন্ডার এমন একটি যোগাযোগের যন্ত্র যা অন্যান্য বিমানকে নিজেদের উপস্থিতি ট্র্যাক করতে দেয়।

আরও পড়ুন  ব্রহ্মপুত্রে চীনের বাঁধ নির্মাণের চেষ্টা : গভীর উদ্বেগ বাংলাদেশের

সংঘর্ষের আগে বেশ কয়েকবার এসইউ-২৭ যুদ্ধবিমানগুলি অপেশাদার আচরণ করে ড্রোনটিতে জ্বালানী নিক্ষেপ করে।

এই পদক্ষেপের প্রতিবাদে ওয়াশিংটনে রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত আনাতোলি আন্তোনোভকে ডেকেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।

বৈঠকের পর রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম আন্তোনোভকে উদ্ধৃত করে বলে, মস্কো ড্রোনের ঘটনাটিকে একটি উসকানি হিসেবেই বিবেচনা করছে।

২০১৪ সালে রাশিয়া ক্রিমিয়া দখল করার পর থেকেই কৃষ্ণ সাগর নিয়ে দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনা বেড়েছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মতে, এর আগেও এই অঞ্চলটিতে মিত্র বিমানের সাথে যোগাযোগ করার জন্য রাশিয়ান পাইলটদের অপেশাদার কাজের নমুনা রয়েছে।

আরও পড়ুন  পুরীর জগন্নাথ মন্দিরের কাছেই ভয়াবহ আগুন, এখনও চলছে উদ্ধারকাজ

তবে এই ঘটনার ফলে দুটি দেশ সামনে কি হবে তা ভাবিয়ে তুলেছে সমর বিশ্লেষকদের।

ট্যাগঃ

আলোচিত সংবাদ