ঢাকা, রবিবার - ১৪ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শহীদ মিনারে জুতা পায়ে প্রধান শিক্ষক

ছবিঃ সংগৃহীত

Share on facebook
Share on whatsapp
Share on twitter
Share on linkedin

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে ফুল দিতে বিদ্যালয়ের শহীদ মিনারে জুতা পায়ে উঠে পড়েলন প্রধান শিক্ষক। এসময় তার সঙ্গে ছিলেন তিনজন সহকারী শিক্ষক।

প্রধান শিক্ষকের পায়ে জুতা, সহকারী শিক্ষকদের পায়ে জুতা নেই এমনই একটি ছবি ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। আর এ নিয়ে শুরু হয়েছে সমালোচনার ঝড়।

মঙ্গলবার (২১ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৭টার দিকে কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার ইউসুফপুর ইউনিয়নের মহেশপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।

আরও পড়ুন  ঢাকার বাড্ডাতে দিনের বেলায় দুর্ধর্ষ ডাকাতি

জুতা পায়ে শহিদ বেদীতে ওঠা নজরুল ইসলাম মহেশপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের বর্তমান প্রধান শিক্ষক।

শিক্ষক নজরুল ইসলাম জানান, আমি গত কয়েকদিনের ধরে অসুস্থ। পায়ের সমস্যাজনিত কারণে জুতা খুলতে পারিনি। যার কারণে জুতা পরেই শহিদ বেদীতে যেতে হয়েছে আমাকে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মঙ্গলবার সকালে মহেশপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের শহীদ মিনারে ফুল দিতে আসেন বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম। এসময় ওই বিদ্যালয়ের তিনজন সহকারী শিক্ষক প্রধান শিক্ষকের সঙ্গে ছিলেন। পরে পায়ের জুতা না খুলেই শহিদ বেদীতে উঠে পড়েন প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম।

আরও পড়ুন  বান্দরবানে ফের ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা

মহেশপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক এক শিক্ষার্থী নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, স্যারের নিজের ফেসবুক আইডিতে ছবিটি আমরা দেখতে পাই। ছবিতে জুতা পরেই ফুল দিতে দেখা গেছে তাকে। এটা ঠিক নয়। তিনি যত বড় মানুষই হোক জুতা পায়ে শহিদ বেদীতে ওঠা ঠিক হয়নি স্যারের। এর মাধ্যমে তিনি শহীদদের অপমান করেছেন।

আরও পড়ুন  চান্দগাঁও মোহরা থেকে নিখোঁজ শিশু হাটহাজারীর ছিপাতলীতে উদ্ধার

দেবিদ্বার উপজেলা নির্বাহী অফিসার ডেজী চক্রবর্তী  বলেন, ফেসবুকে ভাইরাল হওয়ার পর বিষয়টি আমাদের নজরে এসেছে। আমি উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারকে খোঁজ নিয়ে আমাকে জানাতে বলেছি। পরবর্তীতে বিস্তারিত জানানো হবে।

ট্যাগঃ

এ বিভাগের আরও

সর্বশেষ